“আগামী নির্বাচনে মমিসিংগারা জননেত্রী শেখ হাসিনার এ ভালোবাসার পূর্ণ প্রতিদান দেবে”

প্রকাশিতঃ 4:24 am | November 05, 2018 | ৪৭৬

মোঃ মেরাজ উদ্দিন বাপ্পী, ময়মনসিংহঃ বিশ্ব রাজনীতির জনপ্রিয় নেতা বাংলাদেশ স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের তনয়া প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ময়মনসিংহে বলেছেন, ‘হাওর বাওড় মইষের সিংহের দেশে কবির ভাষায় বলেন, ‘নিঃস্ব আমি, রিক্ত আমি দেবার কিছু নেই। আছে শুধু ভালোবাসা দিয়ে গেলাম তাই।

গত শুক্রবার বিকেলে ময়মনসিংহের ঐতিহাসিক সার্কিট হাউজ মাঠে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ময়মনসিংহবাসীকে এসব কথা বলেন। তার আগে মঞ্চের পাশে ১৯৫টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

ময়মনসিংহের মাটি ও মানুষের স্বার্থহীন ভালোবাসায় সিক্ত আপামর বাঙালির স্বপ্নকন্যা বঙ্গবন্ধুর পরম রক্ত দেশরত্ন শেখ হাসিনা আপ্লুত চিত্তে ময়মনসিংহের উদ্দেশ্যে তিনি তার আবেগ প্রকাশ করে গেছেন।

উদার হস্তে দুহাত ভরে দিয়ে গেছেন ১৯৫টি উন্নয়ন প্রকল্প, ময়মনসিংহবাসীকে বলে গেছেন, নিজেদের এলাকার প্রকল্পগুলো বুঝে নিন, এগুলো উপহার দিলাম ময়মনসিংহ বিভাগের জন্য।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা বিশ্বরত্ন শেখ হাসিনার ময়মনসিংহ আগমনে জননেত্রীর ভালোবাসায় ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ রকিবুল ইসলাম রকিব ও আনন্দ মোহন কলেজ ছাত্রলীগ এর দাবি প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নামে আনন্দ মোহন কলেজে নবনির্মিত “জননেত্রী শেখ হাসিনা” ছাত্রীনিবাস ভবনের নাম করণ করার ও উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করার।

ছাত্রলীগের প্রস্তাবনায় উপহার স্বরুপ ৫ তলা ১৩২ শয্য বিশিষ্ট আনন্দ মোহন কলেজ এ “জননেত্রী শেখ হাসিনা” ছাত্রীনিবাসটি গ্রহনপূর্বক- প্রানের নেত্রী আন্তরিক্ষে আরও একটি ১০ তলা বহুতল প্রশাসনিক ভবন উপহার দেন ও ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন।

স্বানীয় আওয়ামীলীগ সুত্রে জানাযায়, ২০১৩ সালের জুনে সর্বশেষ ময়মনসিংহ এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। ২০১৪ সালের নির্বাচনের আগে নৌকার পক্ষে তিনি ভোট চেয়েছিলেন এবং নানা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন বৃহত্তর ময়মনসিংহবাসীকে। সে মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী হয়ে তিনি সব রকমের প্রতিশ্রুতি পূরণ করেছেন। ময়মনসিংহ বাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রীর আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ উপহার হচ্ছে একজন সফল সাবেক মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটুকে সিটি কর্পোরেশন এর প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দেয়া। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার এই উপহার পেয়ে ময়মনসিংহ সিটি এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে নবনিযুক্ত সিটি কর্পোরেশন প্রশাসক মোঃ ইকরামুল হক টিটু প্রধানমন্ত্রীকে উপহার হিসেবে একটি চাবি পাশাপাশি মনমুগ্ধকর মিষ্টি হাসি দিয়ে নৌকার বিজয়ে আস্বস্থ করেন। ফলে প্রধানমন্ত্রী কথা দিয়ে কথা রাখায় আওয়ামী সংগঠনের সকল নেতৃবৃন্দ এবং স্থানীয় জনসাধারণও খুশি।

জানতে চাইলে ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ রকিবুল ইসলাম রকিব মমিসিংগা ভাষায় বলেন, সত্যিই মাননীয় নেত্রী ময়মনসিংহ আপনাকে ভালোবাসে, মমিসিংগারা আপনার উপর আস্থা রাখে- আপনাকে নিয়ে স্বপ্ন দেখে। আপনিও উদার হস্তে দুহাত ভরে দিয়ে গেছেন। ইনশাআল্লাহ আগামী নির্বাচনে জেলা ছাত্রলীগের সকল নেতাকর্মীসহ মমিসিংগারা প্রধানমন্ত্রীর এই বিনয়ী ভালোবাসার পূর্ণ প্রতিদান দেবে বলেও জানান ময়মনসিংহ ছাত্র রাজনীতির প্রান জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রকিবুল ইসলাম রকিব।

এসময় জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রকিবুল ইসলাম রকিব ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার মহোদয় ও আনন্দ মোহন কলেজ অধ্যক্ষকে ধন্যবাদ জানান।সরকারি আনন্দ মোহন কলেজের “শেখ হাসিনা” ছাত্রীনিবাস টি অন্তর্ভুক্তিতে সহযোগিতা করার জন্য।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী তার এই সফরকালে ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা, শেরপুর ও জামালপুর জেলার বিভিন্ন এলাকায় ১৯৫ টি উন্নয়ন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর ও উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের ফলক উন্মোচন করেন। চার জেলায় ১০১টি প্রকল্পের উদ্বোধন ও ৯৪টি প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্তরসহ মোট ১৯৫টি প্রকল্পের ফলক উন্মোচন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তন্মধ্যে উদ্বোধনযোগ্য প্রকল্পের সংখ্যা ময়মনসিংহে ৩১, নেত্রকোণায় ১৯, জামালপুরে-৬ ও শেরপুরে ৪৫টি। ভিত্তি স্থাপনযোগ্য প্রকল্পগুলো হলো ময়মনসিংহ বিভাগীয় পর্যায়ে ১০টি প্রকল্প, ময়মনসিংহ জেলায় ৩৪, নেত্রকোণায় ১৭, জামালপুরে-১৯ ও শেরপুরে ১৪টি।