বিএনপি-জামায়াত নেতাকর্মীরাই!-শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে অশ্লীল স্লোগানের ইন্দন দিচ্ছে!

প্রকাশিতঃ 10:26 am | August 04, 2018 | ৭৩৬

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে যে স্লোগান উচ্চারিত হচ্ছে, তা নিয়ে চার দিকে তুমুল অলোচনা চলছে। এ স্লোগানগুলোতে দেশের পরিস্থিতির নানা চিত্র উঠে এসেছে। গত চার দিনের চলমান রাস্তার আন্দোলনে ছাত্রছাত্রীদের দেয়া স্লোগানের ভাষা কী অশ্লীল, প্রশ্ন তুলেছেন কেউ কেউ।

শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনে ছাত্রদল ও শিবির উসকানি দেওয়ার পাসাপাসি যানবাহন ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ, পুলিশকে লক্ষ্য করে অশ্লীল স্লোগান প্রদর্শনের মতো ঘটনায় সরকার বিরোধী ছাত্রদল ও ছাত্র শিবিরের নেতারা থেকে শুরু করে বিএনপির নেতা কর্মীদেরও সরাসরি মাঠে নেমে কাজ করতে দেখা গেছে।

এভাবেই শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনে অশ্লিল পোস্টার শিশুর হাতে তুলে দেওয়া সহ এই আন্দোলনকে ভিন্নদিকে মড় দেওয়ার চেষ্টা করেছে রাজশাহী ৫ (পুঠিয়া) থেকে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী মাহবুবা হাবিবা।

দেশকে অরাজকতা করতেই তারা আটঘাট বেঁধে মাঠে নেমেছে। আর টাকার বিনিময়ে দিনভর কাজ করছে। এদিকে সাধারণ জনগণ বলছেন, আজকের এই আন্দোলন কতটুকু যৌক্তিকতা আছে তা বলা বড়ই কঠিন বিষয় হয়ে দাঁড়িয়ে। কেন না এর আগেও এই রকম বহু ঘটনা ঘটেছে কিন্তু এই রকম পরিস্থিতি হয় নেই।

যতই সরকারের নির্বাচন ঘনিয়ে আসছে ততোই দেখা যাচ্ছে কোনো না কোনো বিষয়কে কেন্দ্র করে মেঠে নেমে পড়ছে নামধারি কিছু শিক্ষার্থীদের পোশাকে নানা কিসিমের দল। আসলে তাদের যাচাই-বাছাই করা দরকার তারা কতটুকু শিক্ষার সাথে যুক্ত আছে। তাছাড়া বিভিন্ন টিভি মিডিয়ায় ও গণমাধ্যমে দেখলাম আসলে যারা বিভিন্ন জায়গায় আগুন দিয়েছে তারা অবশ্যই শিক্ষিত না। এরা অন্য কেউ; এদের পিছনে  অন্য কেউ প্রতিনিয়ত জোগান দিচ্ছেন। এই জন্যই তারা এতো সাহস করে গাড়িতে আগুন এবং ভাঙচুর করেছেন। আসলে এরাই এই সুন্দর দেশকে নষ্ট করতে চায়।

এর আগে বুধবার ছাত্র শিবিরের নেতা রাতুল সরকার এই আন্দোলনে যোগ দিয়েছেন। তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতেও ব্যাপকভাবে এ আন্দোলনকে সরকার বিরোধী আন্দোলনের প্রেক্ষাপট তৈরির চেষ্টা করেছেন। এমনকি কোটা সংস্কার আন্দোলনকে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সাথে জুড়ে দেয়ার অপচেষ্টাও চালিয়েছেন। উল্লেখ্য, রাতুল সরকার কোটা সংস্কার আন্দোলনের যুগ্ম আহ্ববায়কদের একজন এবং সক্রিয় শিবিরের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত।

এদিকে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নটরডেম কলেজের ছাত্রদের একত্রে বেরিয়ে আসার ছবি দিয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য নটরডেম কলেজ ছাত্রদল মিছিল করছে বলেও প্রচার করা হয়েছে। কিন্তু নটরটেম কলেজ পুরোপুরি রাজনীতিমুক্ত একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

এছাড়াও বৃহস্পতিবার সারাদিন রাজধানীর ধানমন্ডি, জিগাতলা, মোহাম্মদপুর, ফার্মগেট এলাকায় ছাত্র শিবিরের নেতাকর্মীদের এ আন্দোলনে দেখা গেছে। ধানমন্ডিতে একজনকে উসকানি দেয়ার অভিযোগ গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দিয়েছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা।