জামতলা মোড় থেকে রোড বারপোস্ট খুলে দেয়ায় কমেছে এলাকাবাসীর ভোগান্তি

প্রকাশিতঃ 1:50 am | February 20, 2019 | ১৮১

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, ময়মনসিংহ : সাধারন মানুষের জন দুর্ভোগ ও ভোগান্তি মেটাতে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক যখন দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন নগরবাসীকে শান্তিতে রাখতে। কিন্তুু সেখানে কিছু দুষ্টু লোকেরা নিজেদের স্বার্থ হাসিলের জন্য কয়েক হাজার মানুষকে জনদূর্ভোগ ঠেলে দিচ্ছেন।

তেমনি ময়মনসিংহ সিটির ৪ নং ওয়ার্ডের জামতলা মোড়ের একটি ২০ ফুট প্রশস্থ রাস্তা দ্বীর্ঘ দেরযুগ ধরে রোড বারপোস্ট  দিয়ে আটকিয়ে রাখা হয়েছিলো। ফলে ওই এলাকার বাসিন্দারা পরেছে বিপাকে। অন্যদিকে বহুতল ভবনের নির্মান সামগ্রী নিতে হচ্ছে মূল রাস্তা থেকে ভ্যান গাড়ীতে করে। যেখানে এক ট্রাক বালু ২ হাজার ২ শত টাকা মূল্য দিয়ে আনা হয়। সেখানে লেবার দিয়ে সেই বালু টানাতে হয় ৪ হাজার টাকায়।

এভাবেই চলছে দীর্ঘদিন যাবত কাজকর্ম। বাড়ছে মানুষ ও রাস্তার ভোগান্তি। নগরীর জামতলা মোড়ের ভিতরে একটি মাদ্রাসা রয়েছে। সেই মাদ্রাসায় শত শত শিশু ছাত্রদের রাস্তার জন্য জনদূর্ভোগের যেন শেষ নেই। বর্ষায় হাটু পানি ভেঙে আসতে হয় হাট-বাজারে।

অত্র এলাকার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক একে এম ফজলুল হক এবং ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি শহীদুল্ললাহ লিটন ও সাবেক মহিলা কাউন্সিলর খোদেজা আক্তার যৌথভাবে এলাকার লোকজন নিয়ে মাদ্রাসার জমিদান ও রাস্তা নির্মান করে দেন। এতে একটি মহল নিজেদের স্বার্থ হাসিল না হওয়ায় বার বার বাঁধা প্রয়োগ করে আসছে। এই নিয়ে আলোচনা ও সমালোচনার ঝঁড় উঠেছে।

এদিকে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরশনের প্রশাসক মো: ইকরামুল হক টিটুু‘র সঙ্গে মুঠোফোনে কথা বলেন ৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি শহীদুল্ললাহ লিটন। এসময় সিটি প্রশাসক বলেন, বিষয়টি সরেজমিনে গিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। জনদুর্ভোগ যাতে না হয় এ ব্যাপারে আশ্বাস দেন সিটি কর্পোরশনের প্রশাসক মো: ইকরামুল হক টিটু।

তবে সিটি প্রশাসক টিটুর সময় স্বল্পতার কারনে জামতলাতে যেতে না পারায়। গত রবিবার ৪, ৫, ৬ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর খোদেজা আক্তারকে সিটি প্রশাসক নির্দেশ দেন সরেজমিনে গিয়ে বিষয়টি দেখার জন্য। রোড বারপোস্টটির জন্য এলাকার অনেক মানুষ দুর্ভোগ হচ্ছে। করতে পারছেন না বাসাবড়ী। খাজনার চেয়ে বাজনা বেশী। সেই সাথে দিতে পারছেন না অনেকেই বাসা ভাড়া। ভাড়াটিয়ারা গাড়ী নিয়ে বাসার কাছ পর্যন্ত রোড বারপোস্টের জন্য যেতে পারছেন না।

এমন চিত্র দেখার পরে কাউন্সিলর খোদেজা রোড বারপোস্টটি সরিয়ে ফেলেন। এলাকাবাসী তার মহতী কাজের জন্য সাধুবাদ জানান। সেই সাথে ময়মনসিংহ সিটি প্রশাসক টিটুকেও শত শত ভোক্তবোগীরাও ধন্যবাদ এবং অভিনন্দন জানিয়েছেন।