আমি যোগাযোগ রাখার পক্ষে সংলাপের সুযোগ নেই, : কাদের

প্রকাশিতঃ 5:11 am | July 30, 2018 |

(ইউএনবি) জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপির সংলাপের দাবির বিষয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সংলাপের কোনো সুযোগ নেই। কিন্তু বিএনপির সঙ্গে যোগাযোগ থাকতে পারে।

২৯ জুলাই, রবিবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

‘কী সংলাপ করব?’ প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আমার মনে হয় একটা যোগাযোগ থাকতে পারে। এটাতে অসুবিধা কী? তাহলেও তো অনেক কঠিন বরফও গলতে পারে। যোগাযোগ থাকা ভালো। আমি এ যোগাযোগ রাখার পক্ষে।’

‘আমি কাদের সিদ্দিকীর সঙ্গে কথা বলেছি। কর্নেল অলি সাহেবের সঙ্গে কথা বলেছি। এসব যোগাযোগটা রাজনীতিতে সন্দেহ-দ্বন্দ্ব দূর করে। রাজনীতিতে সংঘাত-বিদ্বেষগুলো পার্সোনাল যোগাযোগ থেকে দূর হতে পারে’, যোগ করেন ওবায়দুল।

এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘কাদের সিদ্দিকীর সঙ্গে আলোচনার বিষয়টি একেবারেই রাজনৈতিক নয়। আমাদের একটা সম্পর্ক আছে। আমাদের মন্ত্রণালয়ের কনস্ট্রাকশনের কাজের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। এখানে উনার কিছু পাওনা আছে। সেটা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ফাঁকে ফাঁকে তো রাজনৈতিক বিষয়ে আলোচনা হয়েছেই। রাজনীতি, জোট বিষয় ইত্যাদি কথাবার্তা তো হয়েছে। তবে আমরা কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছিনি।’

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিমের সঙ্গেও কথা হয়েছে বলে জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘আমরা একসময় একসঙ্গে ছাত্রলীগ করেছি। বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রতিবাদে রাজপথে নেমে আন্দোলন করেছি। বেশ কিছুদিন ধরে ভাবছি তার অফিসে যাব চা খেতে।

সেদিন সেলিম সাহেব বিকেলে যেতে বলেছেন। গেলাম, কথা হলো। দেখা হয়েছে। তাদের যে প্রগতিশীল বাম জোট আছে তারা তাদের মতো করেই তাদের অ্যালায়েন্সে থাকবেন। তারা সেভাবেই নির্বাচনে যাবেন। তবে তিনি (মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম) বলেছেন, আমরা সবাই মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি। আমাদের স্পিরিটটা একই। একাত্তরের চেতনাটা আমাদের আছে থাকবে।

কাদের সিদ্দিকীর মেজাজও একই রকম। আমাদের স্পিরিটটা একই। আমি বলেছি, অ্যালায়েন্স করেন আর যাই করেন, এ স্পিরিটটা ধারণ করেই সব সিদ্ধান্ত নেন।’

ওই সময় ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমার সঙ্গে অলি আহমদেরও কথা হয়েছে। রাজনৈতিক স্পেস বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এখন স্পেস দেওয়ার ব্যাপারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা আছে। আমি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও পুলিশের আইজির সঙ্গে কথা বলেছি। অলি আহমদ সাহেবকে বলেছি, আমরা রাজনীতি করি, আমাকে জানাবেন যেকোনো জায়গায় মিটিং করতে চাইলে। আমি বিষয়টা নিয়ে কথা বলব।’

বিএনপির নিরপেক্ষ সরকার দাবি ও সংলাপ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, ‘অন্যান্য গণতান্ত্রিক দেশে নির্বাচনকালীন সরকার যেভাবে হয়, বাংলাদেশেও সেভাবে হবে। এটার জন্য নতুন করে কোনো ভাববার বিষয় নেই।’

বিএনপির জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের নেতাদের ফোন দেওয়া হবে কি না, সেই প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কনডিশনের প্রশ্ন আসলে আমি ফোন দিব না। কথা হতে পারে। তবে আমি কোন কনডিশন মানি না।’

তিন সিটির নির্বাচন নিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমি আশা করি, বিএনপি মাঠে থাকবে। মাঠে না থাকার কোনো কারণ নেই। তারা বলেছেন, তারা মাঠে থাকবেন। আমি এ স্পিরিটকে ওয়েলকাম করছি।’